ত্বক পরিষ্কারের এই ১০টি উপাদান রয়েছে আপনার ঘরেই!

ডেস্ক রিপোর্টঃ  ঘর থেকে বের হলেই দারুন ধুলোবালি! এর মাঝে ত্বক পরিষ্কার থাকে কী করে? আবার শীতকালে ভারী ভারী ক্লিনজার ব্যবহার করলেও ত্বক শুকিয়ে যায়, এমনকি ত্বক ফেটে যেতেও পারে। কী করবেন তাহলে? জেনে নিন ঘরোয়া কিছু উপাদানে ত্বক পরিষ্কার করার নিয়ম, যেগুলো ত্বককে রাখবে নরম ও কোমল-

১) নারকেল তেল

নারকেল তেল  ত্বক শুষ্ক না করেই তা পরিষ্কার করতে দারুন কাজে আসে । এতে প্রাকৃতিক অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিফাঙ্গাল গুণ রয়েছে। তা ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও কাজ করে। আর অ্যাটপিক ডার্মাটাইটিসেরও উপশম করে তেলটি। তবে মুখে ব্রণ থাকলে তা ব্যবহার না করাই ভালো।

নারকেল তেল খুব অল্প পরিমান  মুখে মাসাজ করুন ৩০ সেকেন্ড। এরপর গরম পানিতে ভেজানো তোয়ালে দিয়ে মুখে সেঁক দিন। আর ৩০ সেকেন্ড পর ভেজা তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে ফেলুন।

২) অ্যাপল সাইডার ভিনেগার

ব্রণ দূর করা, রোমকূপ থেকে ময়লা বের করা ও ত্বক খুব তৈলাক্ত বা শুষ্ক হওয়া প্রতিরোধ করে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার। এক ভাগ ভিনেগারের সাথে ২ ভাগ পানি মেশান, ভালো করে ঝাকিয়ে নিন। এরপর কটন বলের সাহায্যে ত্বকে প্রয়োগ করুন। ত্বক শুকিয়ে গেলে ময়েশ্চারাইজার দিন।

৩) মধু ও লেবু

মধু ও লেবু একসাথে ময়েশ্চারাইজার ও অ্যান্টিসেপটিকের কাজ করে। তা ব্রণ দুর করে, ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে। ১ চা চামচ লেবুর রস ও ২ চা চামচ মধু মিশিয়ে মুখ ও গলায় মেখে নিন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৪) টকদই

প্রচুর প্রোটিন ও ল্যাকটিক এসিড আছে দইয়ে। এগুলো ত্বককে ডিটক্সিফাই করে। নিয়মিত দই ব্যবহার করলে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। ত্বকে দই সরাসরি মাসাজ করুন। ৫-১০ মিনিট রেখে দিন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫) অলিভ অয়েল

অলিভ অয়েল শুষ্ক ত্বকের জন্য দারুন কাজ করে । আধা কাপ অলিভ অয়েল, সিকি কাপ ভিনেগার ও সিকি কাপ পানি মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ রাত্রে মুখে মেখে ঘুমাতে পারেন। সকালে ধুয়ে ফেলুন।

৬) আঙ্গুর

গবেষণায় দেখা যায়, আঙ্গুরে থাকা ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট ত্বককে সূর্যের আলোর ক্ষতিকর প্রভাব থেকে বাঁচায়। এছাড়া এতে ভিটামিন সি থাকে যা ত্বকের জন্য উপকারি। ৩-৪টি লাল বা সবুজ আঙ্গুর নিয়ে বিচি ছাড়িইয়ে নিন। ভেতরের অংশটা মেখে নিন মুখে ও গলায়। এতে ত্বকের শুষ্কতা দূর হবে। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৭) ড্রাই ইস্ট

ইস্ট বেকিং করতে কাজে আসে। কিন্তু তাই বলে ত্বকে! ইস্ট আসলে ত্বকের জন্য বেশ ভালো অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। ৭ গ্রাম ড্রাই ইস্টের সাথে ৩ ফোঁটা লেবুর রস ও ২ চা চামচ পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট মুখে মেখে নিন। ১০-১৫ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৮) ব্রণের জন্য বিশেষ ক্লিনজার

হেম্প, স্যাফফ্লাওয়ার বা রোজহিপ অয়েল ব্যবহার করতে পারেন ব্রণ প্রবণ ত্বক পরিষ্কার করতে। এগুলো ত্বকে ব্রণের দাগ দূর করে।

৯) শুষ্ক ত্বকের বিশেষ ক্লিনজার

অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বক থাকলে ম্যাকাডেমিয়া, আমন্ড বা অ্যাভোকাডো অয়েল ব্যবহার করতে পারেন নারকেল তেলের মতোই।

১০) আমন্ড মায়োনেজ স্ক্রাব

শুষ্ক ত্বক থেকে মরা কোষ ওঠাতে ব্যবহার করতে পারেন এই স্ক্রাবটি। সিকি কাপ আমন্ড মিহি গুঁড়ো করে নিন। এর সাথে অল্প পরিমাণে মেয়নেজ ব্লেন্ড করে নিন। অন্য একটি পাত্রে আধা কাপ পানির সাথে ১ চা চামচ অ্যাপল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এরপর মেয়োনেজ-আমন্ডের মিশ্রণ দিয়ে মুখ স্ক্রাব করুন। ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.