আজকেও রেকর্ড গড়েছেন লরি ইভান্স

পাওয়ার প্লে’তে দুই উইকেট হারালেও টেন ডেসকাট এবং আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান লরি ইভান্স মিলে হাল ধরেছিলেন রাজশাহীর। নিজেদের মধ্যে ৫০ রানের জুটিও গড়েছিলেন তাঁরা।

কিন্তু ইনিংসের ১১তম ওভারে আবু জায়েদ রাহির ছোড়া ফুল টস বলকয়ে জোরে মারতে গিয়ে রাব্বির হাতে ক্যাচ দিয়ে বসেন টেন ডেসকাট। খানিক পর সানজামুলকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে বাউন্ডারি লাইনে রাব্বির হাতে ধরা পড়েন জাকির।

পাওয়ার প্লে’তে ব্যর্থ সৌম্য-মার্শাল

দলে ফিরেও ফর্মের দেখা মিলছে না বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকারের। দুই ম্যাচ দলের বাইরে ছিলেন সৌম্য। কিন্তু চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ব্যাট হাতে মাঠে নেমে মাত্র তিন রান করেই ফিরেছেন তিনি।

ইনিংসের তৃতীয় ওভারে রবি ফ্রাইলিঙ্কের প্রথম বলে লেগ সাইডে মারতে গিয়ে উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ শেহজাদের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরের পথ ধরেন সৌম্য। এর পরের ওভারেই ১ রানে খালেদ আহমেদকয়ে উইকেট বিলিয়ে ফেরেন মার্শাল আইয়ুব।

রাজশাহী কিংস একাদশঃ

সৌম্য সরকার, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, জাকির হাসান, কাইস আহমেদ, ক্রিস্টিয়ান জনকার, আরাফাত সানি, সৌম্য সরকার, লরি ইভান্স, মার্শাল আইয়ুব, কামরুল ইসলাম রাব্বি, রায়ান টেন ডেসকাট,

চিটাগাং ভাইকিংস একাদশঃ

মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), আবু জায়েদ রাহি, ক্যামেরন ডেলপোর্ট, রবার্ট ফাইলিঙ্ক, মোহাম্মদ শেহজাদ (উইকেটরক্ষক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাঈম হাসান, সানজামুল ইসলাম, খালেদ আহমেদ, ইয়াসির আলি, নাজিবুল্লাহ জাদরান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.